রাত ২টার পর দিকে দেখি কিশোরী বিছানায় নেই

কুড়িগ্রামের নাগেশ্বরীতে নানা বাড়িতে বেড়াতে এসে সর্বনাশের শি’কার হয়েছেন এক কিশোরী। ঘটনাটি ঘটেছে, মঙ্গলবার (১৭ আগস্ট) দিবাগত রাতে নাগেশ্বরী উপজেলার রায়গঞ্জ ইউনিয়নের রতনপুর বোর্ডের বাজার এলাকায়।

সর্বনাশের শি’কার কিশোরীর নানা জানান, পার্শ্ববর্তী উপজেলা ভুরুঙ্গামা’রীর গছিডাঙ্গা দীপের হাট থেকে ওই কিশোরী (১৬) মঙ্গলবার আমা’র বাড়ি রতনপুর বোর্ডের বাজার এলাকায় বেড়াতে আসে। রাতের খাওয়া শেষে সে আমা’দের সাথে ঘু’মায়। পরে রাত ২ টার দিকে দেখি সে বিছানায় নেই। তারপর খুঁজতে বের হই।

খুজাঁখুজির এক পর্যায়ে, বুধবার (১৮ আগস্ট) ভোরে বাড়ির সামনে পুকুরের ধারে একটি ফাঁ’কা জায়গায় তাকে খুঁজে পাওয়া যায়। সেখানে র’’’’ক্তা’’’’ক্ত অবস্থায় অ’’জ্ঞান হয়ে পড়ে ছিল। পরে সেখান থেকে তাকে উ’দ্ধার করে বাড়িতে নিয়ে আসা হয়।

জ্ঞান ফিরলে কিশোরী জানায়, রায়গঞ্জ ইউনিয়নের রতনপুর গাছীরখামা’র এলাকার আব্দুস ছালামের ছেলে আল-আমীন (২৭) তাকে সর্বনাশ করে ফেলে রেখে পালিয়ে গেছে। পরে পরিবারের লোকজন সকালে তাকে নাগেশ্বরী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে।

অতিরিক্ত র’’ক্ত’’ক্ষ’’’’র’’ণে তার শা’’রীরিক অবস্থার অবনতি ঘটলে সেখান থেকে তাকে কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়। বর্তমানে ওই কিশোরী চি’’কিৎসাধীন রয়েছে। তবে ওই কিশোরীর সাথে অ’ভিযুক্ত আল-আমীনের পূর্ব পরিচয় ছিলো বলে জানিয়েছেন কিশোরীর পরিবার।

নাগেশ্বরী থা’নার ভারপ্রা’প্ত কর্মক’র্তা (ওসি) নবিউল হাসান জানান, বুধবার (১৮ আগস্ট) ‘বিকাল পর্যন্ত এ বি’ষয়ে কোন অ’ভিযোগ পাইনি। তবে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। লিখিত অ’ভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Leave a comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *